লোডশেডিং

বিদ্যুতের আসা যাওয়ার খেলায় ৰুব্ধ নগরবাসী। গত দু’দিন থেকে এর মাত্রা বেড়েছে। যখন তখন চলে যাচ্ছে বিদ্যুৎ। দিনে রাতে অসংখ্য বার লোডশেডিং এর কারণে নগরবাসীর মধ্যে দেখা দিয়েছে ৰুব্ধ প্রতিক্রিয়া।
সংশিৱষ্ট একটি সূত্র বলছে, নগরীতে পিক আওয়ারে প্রতিদিন বিদ্যুতের চাহিদা ৮০ মেগাওয়াট হলেও সরবরাহ পাওয়া যাচ্ছে ৫৫/৫৬ মেগাওয়াট। সূত্র আরো জানায়, খুলনা এবং বড়পুকুরিয়া উৎপাদন কেন্দ্রে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।
এদিকে, লোডশেডিং এর কারণে ভ্যাপসা গরমে বেকায়দায় পড়ছেন মানুষ। অফিস আদালতের কাজেও বিঘ্নের সৃষ্টি হচ্ছে। মোটকথা ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবন। তীব্র গরম মানুষের কাছে অসহনীয় হয়ে ওঠে। লোডশেডিং এর কারণে অনেক এলাকায় সাপৱাই পানির সংকট দেখা দেয়। বেকায়দায় পড়তে হয় ঘর-গৃহস্থালির কাজ নিয়ে। যখন তখন বিদ্যুৎ না থাকার বিষয়টি জানতে চাওয়া হলে এড়িয়ে যাচ্ছেন পিডিবি’র কর্মকর্তারা। বিদ্যুৎ আসা যাওয়ায় কীভাবে বেকায়দায় পড়তে হয় মানুষকে তার জবাব কোথায়?
দীর্ঘ সময় বিদ্যুৎ না থাকা এলাকাগুলোর মানুষের জীবনযাত্রা অনেকটাই হয়ে পড়ে স্থবির। বিশেষ করে গভীর রাতের লোডশেডিং সীমাহীন দুর্ভোগের কারণ হয় মানুষের। আর একবার গেলে কমপৰে ১ ঘণ্টার আগে দেখা মিলছে না বিদ্যুতের। এই পরিস্থিতিতে মানুষের মধ্যে বিরাজ করছে ৰোভ। আর বিদ্যুৎ না থাকায় অফিস-আদালত এবং শিৰা প্রতিষ্ঠানে অবস্থানরতদের পড়তে হয় নানান বিড়ম্বনায়। বিঘ্ন ঘটে হাসপাতালে চিকিৎসাসহ বিভিন্ন সেবা কাজে।

231total visits,1visits today

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.