মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ৯ রানে পরাজিত ভারত

স্পোর্টস ডেস্কঃ নাহ, ইংলিশ বাজিতে তীরে গিয়েও ডুবলো ভারতীয় স্বপ্নের তরী।

মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ৯ রানের ব্যবধানে হেরে শিরোপা জেতা হলো না ভারতের। ইংল্যান্ডের দেয়া ২২৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ২১৯ রানে গিয়ে থেমে যায় ভারত।
লরেন উইনফিল্ড ও ট্যামি বিউমন্টের উদ্বোধনী জুটিতে ভালো শুরু হয়েছিল ইংল্যান্ডের। কিন্তু ৪৭ রানে রাজেশ্বরী গায়েকোয়ারের বলে এ জুটি ভাঙতে বাধে বিপদ। পুনম যাদবের জোড়া আঘাতে ১৬ রানের ব্যবধানে ৩ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। সারা টেলর ও নাটালি স্কিভার হাল ধরেন দলের। তাদের ৫০ ছাড়ানো জুটিতে স্বস্তি ফেরে। ব্যক্তিগত ৪৫ রানে যখন টেলর আউট হন তখন ভাঙল ৮৩ রানের জুটি। ঝুলন গোস্বামী টানা দ্বিতীয় উইকেট পান ফ্রান্সেস উইলসনকে ফিরিয়ে।
স্কিভার ৫১ রানে প্রতিরোধ গড়েন অনেকক্ষণ। তার সঙ্গে ক্যাথেরিন ব্রান্টের ৩৪ ও জেনি গুনের অপরাজিত ২৫ রানের সুবাদে দলীয় স্কোর ২০০ ছাড়ায়। ৭ উইকেটে ২২৮ রান করে ইংল্যান্ড।
ইংলিশদের দেয়া টার্গেটে নেমে ৪৩ রানে ২ উইকেট হারানোর পর পুনম রাউত ও হারমানপ্রীত কৌরের জুটিতে সহজ জয়ের ইঙ্গিত পেয়েছিল ভারত। সেমিফাইনালে দুর্দান্ত ইনিংস খেলা হারমানপ্রীত আউট হন ৫১ রানে। ভারতকে খুব বেশি দুশ্চিন্তায় ফেলেনি তার উইকেট। কারণ সেঞ্চুরির হাতছানি পাচ্ছিলেন পুনম। কিন্তু ১৪ রানের আক্ষেপ থেকে যায় এ ওপেনারের। দলীয় ১৯১ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হয়ে শ্রাবসোলের দ্বিতীয় শিকার হন পুনম। তার ৮৬ বলের ইনিংস সাজানো ১১৫ বলে, ৪টি ৪ ও ১টি ৬ এর।
পুনম আউট হন দলকে ৩৮ রান দূরে রেখে। তখনও ভারতের হাতে ছিল ৬ উইকেট। কিন্তু এ ওপেনারকে ফেরানোর পরই অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ইংল্যান্ড। শ্রাবসোলের ডানহাতি পেসে বিপর্যস্ত হয় ভারত। ২ ওভারে তার জোড়া আঘাতে ২৩ রানের ব্যবধানে বাকি ৬ উইকেট হারায় দ্বিতীয় ফাইনাল খেলতে আসা দলটি। ৪৮.৪ ওভারে ২১৯ রানে অলআউট হয় ভারত।
৯.৪ ওভারে ৪৬ রান দিয়ে ৬ উইকেট নেন শ্রাবসোল। অ্যালেক্স হার্টলি নেন ২ উইকেট। বাকি ২ উইকেট গেছে রানআউটে।
মূলত ইংলিশ বোলার শ্রাবসোলের বলে বিধ্বস্ত হলো মিতালীরা। ৪৬ রান খরচ করে ৬ ভারতীয়দের সাজগরে পাঠান এই ইংলিশ প্রমিলা বোলার।

(ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/ঘাটাইল কম)/-

103total visits,1visits today

Leave a Reply