ভারতে ভেজাল মদের বলি ৯২

ভারতের উত্তরাখণ্ড প্রদেশে তৈরি বিষাক্ত মদ খেয়ে দুই প্রদেশে ৯২ জনের জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের সবাই উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডের। মদ তৈরিকারকদের বিরুদ্ধে এখন যৌথ অভিযান শুরু করেছে উভয় প্রদেশের পুলিশ। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজএইটিনের।

জানা গেছে, মিরাটে ১৮, সাহারানপুরে ৪৬, রুরকিতে ২০ ও কুশীনগরে ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে৷

উত্তরপ্রদেশের ঘটনায় নিহতদের পরিবারের জন্য ২ লাখ টাকা আর্থিক সাহায্য ঘোষণা করেছে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্য সরকার৷ পাশাপাশি চিকিৎসাধীনদের জন্য ৫০ হাজার টাকা ঘোষণা করা হয়েছে।

পুলিশের তদন্তে জানা গেছে, ওই বিষাক্ত মদ তৈরি হয়েছে উত্তরাখণ্ডে৷ দুটি রাজ্যেই একই জায়গা থেকে মদ সরবরাহ করা হয়েছিল৷

প্রথম ৫ জনের মৃত্যু হয় শুক্রবার ভোরে৷ সাহারানপুরের উমাহি গ্রামে৷ ১০ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয় হাসপাতালে৷ পরে মৃতের সংখ্যা বাড়তে থাকে৷

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বেশ কয়েক জনের অবস্থা এখনও উদ্বেগজনক৷

এ ঘটনায় ৩টি পুলিশ স্টেশনে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে৷ শনিবার রাতে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৩০ জনকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ড পুলিশের যৌথ বাহিনী।

এ ঘটনার ৩ দিন আগে উত্তরপ্রদেশের কুশীনগরে বিষমদ খেয়ে মৃত্যু হয় ১০ জনের৷ ওই ঘটনায় ৯ সরকারি অফিসারকে বরখাস্ত করা হয়৷ মৌনি অমাবস্যা মেলা চলাকালীন গ্রামের মানুষ মদ খেয়েছিলো সেখানে।

২০১১ সাল থেকে এখনও পর্যন্ত উত্তরপ্রদেশে ভেজাল মদ খেয়ে মৃত্যুর মোট ৮টি ঘটনা ঘটেছে। তার মধ্য ৪টি-ই ঘটেছে যোগী আদিত্যনাথের আমলে। সব মিলিয়ে প্রায় ২০০ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

(অনলাইন ডেস্ক, ঘাটাইলডটকম)/-

131total visits,2visits today