বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির প্রচারণায় বগুরার আনোয়ার বাসাইলে

পরনে লাল জামা, হাতে লাল রঙের একটি পুরাতন বাইসাইকেল, সামনে পিছনে সচেতনতামূলক লিখা, সাইকেলের সামনে উড়ছে জাতীয় পতাকা। এভাবেই প্রতিদিন ছুটে চলা, দিনের পর দিন। মাইলের পর মাইল পেরিয়ে হাজারো মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বাল্য বিবাহের কুফল সর্ম্পকে মানুষকে সচেতন করাই তার কাজ। তিনি হলেন- বগুড়া সদর উপজেলার বারবাকপুর গ্রামের মৃত আব্দুল বারী তালুকদারের ছেলে আনোয়ার তালুকদার (৫২)। যিনি পেশায় একজন কাঠ মিস্ত্রি।

‘হতে চাই না বিয়ের পাত্রী, হতে চাই স্কুলছাত্রী’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বাল্যবিয়ে মুক্ত দেশ গড়ার প্রত্যয়ে ২০১৫ সাল হতে সম্পূর্ণ নিজ অর্থায়নে টেকনাফ হতে তেতুলিয়া পর্যন্ত সাইকেল চালিয়ে বাল্যবিয়ের কুফল সর্ম্পকে মানুষকে সচেতন করার জন্য লিফলেট বিতরণ সহ নানা ধরনের প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

এ পর্যন্ত তিনি সাড়া দেশের ৬৪ জেলার প্রায় ১৬৩টি উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তার কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন। প্রতিবছর শীতের সময়ে তিনি ৩ মাস এই কাজে ব্যস্ত থাকেন।

প্রচারণার এক পর্যায়ে সোমবার (১১ মার্চ) তিনি হাজির হন টাঙ্গাইল জেলার বাসাইল উপজেলায়। কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হাজির হয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেন বাল্যবিয়ের কুফল সম্বলিত লিফলেট।

এ সময় তিনি বাসাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম তুহিন আলীর সাথে দেখা করেন।

বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ সর্ম্পকে জানতে চাইলে আনোয়ার তালুকদার জানান, কয়েক বছর আগে আমার দুই ভাগনির বাল্যবিয়ে হয় এবং তারা বাল্যবিয়ের কুফলের শিকার হন। এরপর থেকেই আমি এই কার্যক্রমের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করি।

(বাসাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-

105total visits,1visits today