বার্সেলোনা ছাড়ছেন নেইমার

বার্সেলোনা ছাড়ছেন নেইমার।

দল ছাড়ার বিষয়টি ব্রাজিলিয়ান নেইমার সতীর্থদের জানিয়ে দিয়েছেন বলে ক্লাবের এক মুখপাত্র বুধবার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর মাধ্যমে দলবদলের বাজারে বেশ কিছুদিন ধরে চলতে থাকা নেইমারের পিএসজিতে যোগদানের গুঞ্জনটি হয়তবা সত্যি হতে চলেছে।
সূত্রটি জানিয়েছে, ‘নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী নেইমার অনুশীলনে এসেছিলেন। সেখানেই তিনি সতীর্থদের কাছে ক্লাব ছাড়ার বিষয়টি জানিয়েছেন। কোচও তাকে অনুশীলন না করার অনুমতি দিয়েছেন। একইসাথে তাকে ভবিষ্যতের বিষয়গুলো সুন্দরভাবে সমাধানের কথাও বলেছেন।’
গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই দলবদলের বাজারে নেইমারের বার্সেলোনা ছাড়ার বিষয়টি নিয়ে বেশ আলোচনা-সমালোচনা চলছিল। গুঞ্জন ছিল নতুন বস আর্নেস্টো ভালভার্দেকে ছেড়ে নেইমার রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে পিএসজিতেই যাবার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন। যদিও এ ব্যপারে আনুষ্ঠানিক কোন মন্তব্য কোন ক্লাবের পক্ষ থেকেই কখনই আসেনি। বিষয়টি সত্যি হলে চুক্তির পরিমান রেকর্ড বইয়ে বিস্ময়ের জন্ম দিবে। সর্বশেষ গত বছর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড জুভেন্টাস থেকে পল পগবাকে ৮৯.৩ মিলিয়ন পাউন্ডে দলে ভিড়িয়েছিল। এ পর্যন্ত ক্লাব ফুটবলে এটাই রেকর্ড হয়ে আছে।
প্রাক-মৌসুম সফর শেষ করে নেইমার বার্সেলোনার একটি বাণিজ্যিক প্রমোশনাল কাজে চীন সফরে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে গতাকাল তিনি বার্সেলোনায় ফিরেছেন। স্থানীয় সময় সকাল ৯.০০টায় তিনি অনুীশলন মাঠে আসেন। কিন্তু ঘন্টাখানেকেরও কম সময়ের মধ্যে মাঠ ত্যাগ করে চলে যান। গত বছর নেইমারের সাথে বার্সেলোনা ২০২১ সাল পর্যন্ত চুক্তি নবায়ন করেছিল। এখন তার পিএসজিতে যাবার সিদ্ধান্তে কাতালান জায়ান্টদের সাথে তার চুক্তির শর্তাবলী প্রথমে পূরণ করতে হবে। পিএসজির সাথে নেইমারের ব্যাপারে বার্সার কোন সমঝোতা হয়েছে কিনা এটাও নিশ্চিত জানা যায়নি। এদিকে লা লিগা সভাপতি জেভিয়ার তেবাস সতর্ক করে জানিয়েছেন, পিএসজির কাছ থেকে কোন ধরনের অর্থ গ্রহণ করা তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। উয়েফার আর্থিক ফেয়ার প্লে আইন (এফএফপি) এর সাথে সংশ্লিষ্ট কিছু বিষয়ে শর্তাদি পূরণে ব্যর্থ হয়েছে পিএসজি। তেবাস এই বিষয়টিকে সামনে নিয়ে এসেছেন। এর আগেও ২০১৪ সালে এই আইন ভঙ্গ করায় পিএসজিকে চ্যাম্পিয়নস লীগের দল সীমিত করতে বাধ্য করেছিলেন উয়েফা।
গত তিন মৌসুম ধরে পাঁচবারের বিশ^সেরা ফুটবলার লিয়নেল মেসি ও উরুগুয়ের তারকা লুইস সুয়ারেজের সাথে একত্রিত হয়ে নেইমার বার্সেলোনায় বিশ^ ইতিহাসে অন্যতম সেরা আক্রমণভাগের নেতৃত্ব দিয়েছেন। একসাথে তারা দুইবার লা লিগা, একবার চ্যাম্পিয়নস লীগ ও তিনটি স্প্যানিশ কাপ শিরোপা জিতেছেন। এর মধ্যে নেইমার ১৮৬ ম্যাচে ১০৫টি গোল করা ছাড়াও ৮০টিতে সতীর্থদের সহযোগিতা করেছেন।

 

(বাসস/ ঘাটাইল.কম)/-

243total visits,3visits today