টুকুসহ বিএনপির ২৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলে পুলিশের মামলা

টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুসহ ২৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

সোমবার টাঙ্গাইল সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আল মামুন বাদী হয়ে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় অন্যান্য আসামিরা হলেন, জেলা বিএনপির সভাপতি শামছুল আলম তোফা, সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সাদেকুল আলম খোকা ও আতাউর রজমান জিন্নাহ, যুগ্ম সম্পাদক খন্দকার আনিসুর রহমান ও আবুল কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হামিদ তালুকদার, প্রচার সম্পাদক ও জেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক একেএম মনিরুল হক, জেলা তাঁতী দলের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি খন্দকার রাশেদুল আলম, ছাত্রদলের সহ-সভাপতি আবেদ হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক নুরুল ইসলাম, ক্রীড়া সম্পাদক রাশেদ খান, যুবদল কর্মী তানভির হোসেন, আমিনুল ইসলাম, মানিক মিয়া, মো. রুবেল।

এছাড়া রোববার সংঘর্ষ চলাকালে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া বিএনপি কর্মী রজব মিয়া, মনিরুজ্জামান তুষার, সিরাজুল ইসলাম, সিফাত মিয়া, শহিদুল ইসলাম, আবুল হোসেন, ইকবাল হোসেন, আমির হামজা সিকদারকেও আসামি করা হয়েছে।

এ ছাড়াও মামলায় অজ্ঞাত আরও ১০০/১৫০ জনকে আসামি করা হয়।

এদিকে এই মামলায় আট বিএনপি কর্মী গ্রেফতার হয়েছেন। তাদের সোমবার টাঙ্গাইল আদালতে পাঠালে বিচারক তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়ে দেন।

গত রোববার বিএনপির বর্তমান কমিটির নেতাকর্মী এবং কমিটিতে পদবঞ্চিতদের মধ্যে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে। সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচী পণ্ড হয়ে যায়। দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলায় জেলা প্রেসক্লাব চত্বর রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। পুলিশ লাঠিপেটা করে টিয়ার শেল মেরে হামলাকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পুলিশ জানায়, বিএনপির পদবঞ্চিত পক্ষ ইট-পাটকেল ছুঁড়ে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের ও কমিউনিটি সেন্টারের দরজা-জানালা ভাঙচুরসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে।

সংঘর্ষের এক পর্যায়ে টাঙ্গাইল রাইফেল ক্লাবের সামনে রাখা একটি (ঢাকা মেট্রা-গ ১৪-১০৮৫) গাড়ি থেকে কয়েক ডজন ধারালো অস্ত্র, চাপাতি, চাকু, রড, হাতুরি, পেথিড্রিন ইনজেকশন, ও সিরিঞ্জসহ ১১ কর্মীকে আটক করে পুলিশ।
এ ঘটনায় ঢাকা থেকে আসা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ ও শহীদুল ইসলাম বাবুলসহ কেন্দ্রীয় নেতারা সমাবেশে যোগ দিতে পারেননি।

(ঢাকাটাইমস/শীর্ষনিউজ/ ঘাটাইল.কম)/-

241total visits,1visits today

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.