টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ; শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন, ধর্ষক গ্রেফতার

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে চতুর্থ শ্রেণির এক শিশু ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠছে। এ ঘটনায় এলাকায় নিন্দার ঝড় উঠেছে। প্রতিবাদে সহপাঠী শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করেছে। ঘটনায় ধর্ষক সোহেল রানাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। সোহেল রানা একই উপজেলার পাইস্কা ইউনিয়নের গাড়াখালী গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে।

 

পুলিশ জানায়, ধনবাড়ী উপজেলার যদুনাথপুর ইউনিয়নের বারইপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে সোহেল রানা তার শ্বশুর বাড়ির একটি গোয়াল ঘরে মুখে গামছা বেধে ধর্ষণ করেছে। গত শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় মেয়েটির কান্না কাটিতে আশপাশের লোকজন এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে এবং ধর্ষক সোহেল রানাকে হাতে নাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

 

এ দিকে এ ঘটনায় রোববার ধর্ষিতা স্কুলছাত্রীর সহপাঠী বারইপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে ধর্ষক সোহেল রানার বিচার দাবি করেছেন। এ সময় স্থানীয় ইউপি মেম্বার মিজানুর রহমানসহ এলাকাবাসী ওই শিক্ষার্থীদের দাবীর সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

 

স্থানীয় ইউপি মেম্বার মিজানুর রহমান বলেন, ঘটনাটি খুবই ন্যক্কারজনক। এ ঘটনায় ধর্ষক সোহেল রানার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত। যাতে কেউ এ ধরনের ঘটনা ঘটাতে সাহস না পায়।

 

মামলার বাদী মেয়ের বাবা জানান, আমার মেয়ের সর্বনাশকারীর বিচার চাই।

 

ধনবাড়ী থানার এসআই ফারুকুল ইসলাম জানান, ধর্ষককে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ধর্ষিতা মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। মেয়েটির প্রয়োজনীয় চিকিৎসাও করা হচ্ছে। ধনবাড়ী থানার ওসি মজিবর রহমান জানান, ওই স্কুলছাত্রীর ধর্ষণের ঘটনায় ধনবাড়ী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করা হয়েছে।

 

(ঘাটাইল.কম)/-

201total visits,2visits today