টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে ভিন্ন প্রশ্নপত্রে এসএসসি পরীক্ষা, দুশ্চিন্তায় পরীক্ষার্থীরা

সারাদেশে একযোগে গত ১ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়েছে। ঢাকা বোর্ডে প্রথম দিনের এসএসসির বাংলা প্রথমপত্রের  প্রশ্নপত্র ‘ক’ (জবা) সেটে হলেও দেলদুয়ার উপজেলায় পরীক্ষা নেয়া হয়েছে ‘খ’ (গাঁদা) সেটে।

অভিন্ন প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেয়ার কথা থাকলেও উপজেলার ২৬১৩ জন পরীক্ষার্থী ভিন্ন প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিয়ে বিপাকে পড়েছে।

পরীক্ষার কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা বিষয়টি না জানলেও পরীক্ষা শেষে জানতে পারে দেলদুয়ার উপজেলায়ই একমাত্র ‘খ’ সেটে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। এতে একদিকে ভিন্ন প্রশ্নপত্রের পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন নিয়ে বিপাকে রয়েছেন পরীক্ষার্থীসহ অভিভাবকরা।

পরীক্ষা শুরুর আগে নির্ধারিত সময়ে প্রশ্ন বের করার সময় ‘ক’ সেটের পরিবর্তে ‘খ’ সেট বের করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা এ নিয়ে বিব্রত অবস্থায় রয়েছেন। পরীক্ষার খাতা যদি ‘খ’ সেটের মাধ্যমে মূল্যায়ন না হয়- সেক্ষেত্রে বহু নির্বাচনী (নৈর্বত্তিক) পরীক্ষার উত্তর সম্পূর্ণ ভিন্ন হতে পারে। এছাড়া বাংলা ( আবশ্যিক) (সৃজনশীল) খাতায় ‘ক’ সেট অনুসারে মূল্যায়ন করলে পরীক্ষার ফলাফল ভিন্ন হবে।

‘ক’ সেটের পরিবর্তে ‘খ’ সেটের প্রশ্নপত্রে নেয়া খাতাগুলো বোর্ড কীভাবে মূল্যায়ন করবে- এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছে পরীক্ষার্থীরা।

৩ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) বাংলা দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষার পূর্বেও কেন্দ্রের সামনে পরীক্ষার্থীদের এসব আলোচনা করতে দেখা গেছে।

এসব ছাত্রছাত্রীর ভবিষ্যতের কথা ভেবে ভিন্ন প্রশ্নপত্রে নেয়া পরীক্ষার খাতাগুলো ভিন্নভাবে মূল্যায়নের জোর দাবি জানান, স্থানীয় সচেতন মহল।

দেলদুয়ার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মজিবুল আহসান জানান, দেলদুয়ার উপজেলায় মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ হাজার ১৪ জন। এর মধ্যে এসএসসি ২ হাজার ৬১৩ জন, দাখিল ২৯০ জন এবং কারিগরি বোর্ডের অধীনে ২১১ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। বাংলা প্রথম পত্রের পরীক্ষা ‘খ’” সেট প্রশ্নপত্রে নেয়া হয়েছে বলেও জানেন ওই শিক্ষা কর্মকর্তা। তবে কেন বা কীভাবে ‘ক’” সেট প্রশ্নপত্রের পরিবর্তে ‘খ’” সেট প্রশ্নপত্র এলো এ ব্যাপারে কিছুই জানা নেই তার।

তিনি আরো বলেন, এ বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে। তিনিই বিষয়টি সম্পর্কে  ভালো বলতে পারবেন।

দেলদুয়ার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোছা. আক্তারুন্নেছা জানান, পরীক্ষা চলাকালে আমরা নিজেরাও জানি না অন্যান্য জায়গায় ‘ক’” সেটে পরীক্ষা হচ্ছে। বিষয়টি জানাতে পেরে ঊর্ধ্বতন কর্তপক্ষকে অবগত করি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ দেলদুয়ারের ‘খ’” সেট নির্ধারিত ছিল জানালে আমরা আশ্বস্ত হই। তবে জেলার অন্যান্য উপজেলায় ‘ক’” সেট প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে এবং দেলদুয়ারে ‘খ’” সেটে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তিনি।

এরকম ভিন্ন প্রশ্নপত্র দেলদুয়ার ছাড়া আরো কয়েকটি উপজেলায় হয়েছে বলে দাবি করেন ওই কর্মকর্তা।

দেলদুয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবিনা ইয়াসমিন জানান, যেকোনভাবে দেলদুয়ারে প্রথমদিনে বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষা ‘খ’” সেট প্রশ্নপত্রে নেয়া হয়েছে। তবে পরীক্ষার্থীদের এ নিয়ে বিব্রত হওয়ার প্রয়োজন নেই। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এমনকি বোর্ডের সাথে কথা বলেছি, দেলদুয়ার উপজেলার সবগুলো পরীক্ষার্থীর প্রথম দিনের বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষা খাতা আলাদা দেখা হবে।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা লায়লা খানম বলেন, বাংলা প্রথমপত্র পরীক্ষা ‘খ’ সেটে নেয়া হয়েছে কি না এটি আমার জানা নেই।

(দেলদুয়ার প্রতিনিধি/৩ফেব্রুয়ারি/ ঘাটাইল ডট কম)/-