ঘাটাইল উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) সকালে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক সভাকক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মীর মোশারফ হোসেন খান ঘাটাইল উপজেলার ১৯ জন প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেন। এদের মধ্যে ছয় জন চেয়ারম্যান, পাঁচ জন ভাইস চেয়ারম্যান ও আট জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন।

আগামী ৩১ মার্চ চতুর্থ দফা উপজেলা নির্বাচনে টাঙ্গাইলে ১২টি উপজেলা নির্বাচনের ভোট গ্রহণের তারিখ নির্ধারিত হয়েছে। টাঙ্গাইল জেলার ধনবাড়ী, মধুপুর ও গোপালপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে কোন প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় তিনজন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ইতোমধ্যে নির্বাচিত হয়েছেন। আগামি ৩১ মার্চ টাঙ্গাইলের নয়টি উপজেলা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে।

চেয়ারম্যান

ঘাটাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য প্রতীক পেয়েছেন ছয় জন প্রার্থী। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম লেবু পেয়েছেন নৌকা প্রতীক। সতন্ত্র ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এবং বর্তমান উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আরিফ হোসেন পেয়েছেন আনারস প্রতীক। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক ও জামুরিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম হেস্টিং পেয়েছেন মোটরসাইকেল প্রতীক। জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সৈয়দ তুহীন আব্দুল্লাহর ছেলে এহসান আব্দুল্লাহ পেয়েছেন উড়োজাহাজ প্রতীক। সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম জনি পেয়েছেন ঘোড়া প্রতীক। এবং মোঃ মনিরুজ্জামান পেয়েছেন গোলাপ ফুল প্রতীক৷

ভাইস চেয়ারম্যান

ঘাটাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য প্রতীক পেয়েছেন পাঁচ জন প্রার্থী। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন পেয়েছেন টিউবওয়েল প্রতীক। যুবলীগ নেতা সুলতান মাহমুদ পেয়েছেন চশমা প্রতীক। যুবলীগ নেতা সুমন খান (বাবু) পেয়েছেন টিয়া প্রতীক। কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সহ সভাপতি সজীব সরকার পেয়েছেন মাইক প্রতীক। এবং শিল্পপতি কাজী আরজু পেয়েছেন তালা প্রতীক।

এছাড়া এম এম সোয়েব এবং তুহীন খান তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান

উপজেলা নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য প্রতীক পেয়েছেন আট জন প্রার্থী। বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কানিজ ফাতেমা পেয়েছেন হাঁস প্রতীক। উপজেলা মহিলা লীগের নেত্রী নুরজাহান সিদ্দিকা পেয়েছেন ফুটবল প্রতীক। ঘাটাইল পৌরসভার ওয়ার্ড কমিশনার মোঃ কবির হোসেনের সহধর্মিণী শাহিনা আক্তার শিল্পী পেয়েছেন সেলাইমেশিন প্রতীক। উপজেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগে সিনিয়র সহ সভাপতি আবু মোঃ শোয়েব (ডন) এর সহধর্মিণী মীর আলেয়া পারভীন পেয়েছেন বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীক। তাসলিমা জেসমিন পেয়েছেন প্রজাপতি প্রতীক। মরিয়ম আক্তার পেয়েছেন ফুলদানী প্রতীক। আফিয়া বেগম পেয়েছেন পদ্মফুল প্রতীক। এবং ফাহিমা তালুকদার পেয়েছেন কলসি প্রতীক।

ঘাটাইল উপজেলা নির্বাচনের সহকারি রিটার্নিং অফিসার মোঃ মহিউদ্দিন প্রার্থীদের এই প্রতীক বরাদ্দর বিষয় ঘাটাইলডটকমকে নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে ঘাটাইলে প্রার্থীরা প্রতীক পাওয়ার পর থেকেই স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রচার প্রচারণায় নেমে পড়েছেন।

টাঙ্গাইল জেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩৮ জন, ভাইস-চেয়ারম্যান পদে ৫৮ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫৩ জন প্রার্থী। জেলার ধনবাড়ী, মধুপুর ও গোপালপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে কোন প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় তিনজন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তারা হলেন, ধনবাড়ী উপজেলায় হারুনর রশিদ হীরা, মধুপুরে সরোয়ার আলম খান আবু ও গোপালপুরে ইউনুস ইসলাম তালুকদার ঠান্ডু।

(নিজস্ব প্রতিবেদক, ঘাটাইলডটকম)/-

336total visits,1visits today