কম ঘুমে যা হতে পারে আপনার শরীরে

শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকার জন্য ঘুমের কোন বিকল্প নে্ি। মানব জীবনে ঘুম আশীর্বাদ স্বরূপ। অথচ এই ঘুমকে সবচেয়ে অবহেলা করা হয়। সারাদিনের কাজ, খাওয়া ঠিক থাকলেও ঘুমকে আমরা তেমন একটা গুরুত্ব দিই না। যার কারণে আমাদের পড়তে হয় নানান শারীরিক সমস্যায়। ২০১১ সালে সেন্টারস ফর ডিজিস কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন এক জরিপে দেখেছে যে, শতকরা ২৫ ভাগ আমেরিকান ঠিকমতো ঘুমাতে পারেন না। একসময় যেয়ে এই ঘুম ইনসোমেনিয়া রুপান্তারিত হয়। একজন সুস্থ মানুষের ৮ ঘন্টা ঘুমের প্রয়োজন, এরচেয়ে কম ঘুমের জন্য হতে পারে নানান মারাত্নক রোগ। কম ঘুমের কারণে কী হতে পারে দেখে নিন এক নজরে।

১। ডায়াবেটিস

অপর্যাপ্ত ঘুম ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি তৈরি করে। এটি চিনি জাতীয় খাবার এবং জাঙ্ক ফুড খাওয়ার ইচ্ছা বাড়িয়ে দেয়। অপর্যাপ্ত ঘুমের কারণে যে ক্লান্তিবোধ তৈরি হয় তা দূর করার জন্য কার্বোহাইড্রেইড জাতীয় খাবার বেশি গ্রহণে আগ্রহ তৈরি হয়। যা রক্তে চিনির পরিমাণ বৃদ্ধি করে।

২। ক্যান্সারের ঝুঁকি

অপর্যাপ্ত ঘুম ব্রেস্ট ক্যান্সারের প্রবণতা বাড়িয়ে তোলে। ২০১০ সালে গবেষণায় দেখা গেছে ১২৪০ মানুষ কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে ৩৩৮ মানুষই ৬ ঘন্টার চেয়ে কম ঘুম অভ্যস্ত ছিলেন।

৩। হাড়ের সমস্যা

৬ ঘণ্টার কম ঘুম হাড়ের জোর কমিয়ে দেয়। ফলে হাড় দুর্বল হয়ে পড়ে এবং ছোটখাটো আঘাতে ভেঙে যাওয়ার প্রবণতা তৈরি হয়। একইসঙ্গে হাড়ের সংযোগস্থলে ব্যথা শুরু হতে পারে।

৪। স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনা

২০১২ এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, পারিবারিক ইতিহাস বা অন্য কোন কারণ ছাড়া শুধু ঘুমের অভাবের কারণে আপনার স্ট্রোক হতে পারে। ঘুমানোর সময়ে আমাদের শরীরের নানা অঙ্গ নিজেদের সারিয়ে নেয়। দূষিত টক্সিন শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। তাই অপর্যাপ্ত ঘুম স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

৫। স্মৃতিশক্তি লোপ

কম ঘুমে অভ্যস্ত মানুষদের মস্তিষ্ক সঠিকভাবে কাজ করে না। তারা কোন কাজে মন দিতে পারে না। এমনকি দিন দিন তাদের স্মৃতিশক্তি লোপ পেতে থাকে।

৬। প্রস্রাবের সমস্যা

আপনি প্রস্রাবের বেগ অনুভব করবেন কিন্তু প্রস্রাব হবে না। এই বিব্রতকর সমস্যা হতে পারে কম ঘুমের কারণে।

172total visits,2visits today

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.